durga puja:the second edition of ‘swachcha nirmal sustha bangla award 2018’ and confers awards | পুজো হোক সবার, উদ্যোগ ‘অন্যরকম’ শারদ সম্মানের

0
21


রজত কর্মকার

‘এ দেশ তোমার আমার’। কিন্তু শারদীয়ার উৎসব কি সত্যিই সকলের হয়? সব্বাইকে নিয়ে আনন্দ উৎসবে শামিল হওয়া যায়? বাড়ির বয়স্করা, ছোটরা বা যাঁরা শারীরিক ভাবে আর পাঁচজনের থেকে একটু পিছিয়ে, তাঁরা এই ভুবনের আনন্দধারা থেকে খানিকটা হলেও বঞ্চিত থাকেন। সঙ্গত কারণেই অবশ্য। তবে সকলকে সঙ্গে করে চলার ভাবনা নিয়েই এক অন্যরকম শারদ সম্মানের ঘোষণা হল শুক্রবার।

গার্গী রায়চৌধুরী।

তথাকথিত জাঁকজমক, আলোকসজ্জা, প্যান্ডেল, প্রতিমা – এ সব বাদ দিয়ে বয়স্ক, শিশু এবং ‘প্রতিবন্ধী’দের কথা উঠে এল স্বচ্ছ নির্মল সুস্থ বাংলা শারদ সম্মানে। যাদের থিম, ‘এবার পুজোয় ভালোর লড়াই।’ প্রত্যেক পুজো কমিটিকে নম্বর দেওয়া হবে বিভিন্ন দিক বিচার করে। বয়স্ক, শিশু এবং প্রতিবন্ধীদের জন্য আলাদা লাইনের ব্যবস্থা, প্রকৃতির দিকে কতটা খেয়াল রাখা হয়েছে, অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা, মণ্ডপের আশপাশে বসা স্টলে খাবারের মান ইত্যাদি। এ সব বিচার করে আবেদনকারী উদ্যোক্তাদের মধ্যে থেকে বেছে নেওয়া হবে সেরাদের।

অগ্নিমিত্রা পাল এবং সঞ্জনা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এ বার এই উদ্যোগ দ্বিতীয় বছরে পড়ল। গত বছর প্রায় ৩০০-র কাছাকাছি পুজো কমিটি আবেদন করেছিল। এ বছর সংখ্যাটা আরও অনেকটা বাড়বে বলে বিশ্বাস ড্যাফোডিল গ্রুপের শীর্ষকর্তা হর্ষবর্ধন সারাফের। সংস্থার চেয়ারম্যান সঞ্জয় সারাফ বলেন, ‘আমার স্ত্রী দীর্ঘ দিন ধরে অসুস্থ। ২৪ ঘণ্টা তাঁকে অক্সিজেন নিয়ে থাকতে হয়। দুরারোগ্য রোগে আক্রান্ত তিনি। তাঁকে নিয়ে আমি ইউরোপ-আমেরিকা ঘুরেছি। কিন্তু বিশ্বাস করুন, পুজোর সময় ঘোরার সাহস পাই না। আমার নাতনিরা আছে, ওদের নিয়ে পুজো দেখতে বেরোই, তাও সকালে। বিকেলের পর বাচ্চাদের নিয়ে বেরোতে ভয় পাই। কিন্তু ওরাও তো আনন্দ করতে চায়। সেই ভাবনা থেকেই এমন একটা শারদ সম্মানের কথা ভেবেছি আমরা।’

শুক্রবার ৭ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠানের সূচনায় উপস্থিত ছিলেন সস্থার দুই ডিরেক্টর হর্ষবর্ধন সারাফ, যশবর্ধন সারাফ, সংস্থার চেয়ারম্যান সঞ্জয় সারাফ, গায়ক-অভিনেতা সাহেব চট্টোপাধ্যায়, অভিনেত্রী গার্গী রায়চৌধুরী, অভিনেত্রী সঞ্জনা বন্দ্যোপাধ্যায়, ফ্যাশন ডিজাইনার অগ্নিমাত্রা পাল, অভিনেতা রজতাভ দত্ত, গায়ক অনীক ধর প্রমুখ।

এ বছর মোট ৬টি বিভাগে পুরস্কার দেওয়া হবে। সেগুলি হল: পরিবেশ পরিচ্ছন্নতায়, দর্শনার্থীদের সুরক্ষায়, স্বাস্থ্য সচেতনতায়, বয়স্ক ও প্রতিবন্ধীদের জন্য সুবিধায়, সামাজিক দায়বদ্ধতায় এবং সবুজ শিল্পী।

এ দিন থেকেই পুজো উদ্যোক্তারা এই সম্মানের জন্য আবেদন করতে পারবেন। পরিবেশের কথা মাথায় রেখে গোটা প্রক্রিয়াটি কাগজবিহীন করা হয়েছে। আবেদন করার জন্য সংস্থার ওয়েবসাইট
www.healthetc.in- এ যোগাযোগ করতে পারেন। ফোন করতে পারেন 03366111111 নম্বরে।

ছবি এবং ভিডিয়ো: রজত কর্মকার





Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here